দাশুড়িয়ায় সওজ’র শোভাবর্ধন : নজর কাড়ছে পথযাত্রীদের

0

রফিকুল ইসলাম সুইট : উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের সংযোগস্থল পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়া গোল চত্বর। এক সময়ের আবর্জনাপূর্ণ গোল চত্বর এখন নজরকাড়া ফুলের বাগান। বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল এবং এর চারপাশে নানা রঙের ফুল নজড় কেড়েছে পথযাত্রীদের। মুজিব শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে সড়কে সৌন্দর্য বর্ধনের কাজটি করেছে সড়ক ও জনপদ বিভাগ।

দাশুড়িয়া গোল চত্ত্বরদিয়ে স্থলপথের অধিকাংশ যান সংযুক্ত হয় রাজধানীর সাথে। এই জায়গায় মাটির নিচে গলন থাকায় অনেকবার মেরামত করে রাস্তা ভালো করতে পারে নাই কতৃপক্ষ। ফলে চরম ভোগান্তির পোহাতে হয়েছে যাত্রীদের। সর্বশেষ কয়েক মুজিব বর্ষের আগে কংক্রিটের ঢালাই করে রাস্তা তৈরীর সিদ্ধান্ত নেয় সড়ক ও জনপথ বিভাগ। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক কাজ শেষ হয়েছে। দাশুড়িয়ায় বড়পরিসরে গোল চত্বর, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল এবং বিভিন্ন রঙের ফুল এখন পথচারীদের করেছে মনোমুগ্ধ। এই শোভা দেখার জন্য প্রতিদিনই বিভিন্ন জায়গা থেকে মানুষ পরিবার নিয়ে বেড়াতে আসে।

গাড়ি চালক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বছর দেড়েক আগেও দাশুড়িয়া মোড়ের রাস্তা খারাপ থাকায় অনেক গাড়ী নষ্ট হয়ে পরে থাকত। অসহনীয় যানজট লেগে থাকতো। খুব কষ্ট হতো। এখন কষ্ঠ ত নাই। ফুলের বাগান করায় এখানে আসলে মন সুন্দর হয়ে যায়। ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক রবিউল ইসলাম বলেন , আমি আগে পাবনা থেকে কলেজে আসতাম। দাশুড়িয়া সহ কয়েকটি জায়গায় রাস্তা খারাপ থাকা বাধ্য হয়ে ঈশ্বরদীতেই বাসা ভাড়া নিয়েছিলাম। এখন আর কোন জায়গায় রাস্তা খারাপ নাই য়াতায়াতে কষ্ঠ নাই। দাশুড়িয়া মোড়ে সড়ক বিভাগ যে শোভাবর্ধন করেছে সেটা উপভোগ করার মতো।

পাবনা সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল মনসুর আহমেদ বলেন, মুজিব জন্মশতবর্ষ উপলক্ষ্যে আমাদের একটি নির্দেশনা ছিল জেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সুসজ্জিতকরণ। তারই পরিপ্রেক্ষিতে দাশুড়িয়া মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন ও ফুলের বাগান করা হয়েছে। জেলার আরো কিছু জায়গায় আমরা শোভাবর্ধনের কাজ করছি। যার ফলে জেলার গুরুত্বপুর্ণ সড়কগুলোতে সুন্দর পরিবেশ তৈরি হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না.